ফ্লাটার পরিচিতি

Flutter bangla tutorial

Flutter Tutorial Bangla

ফ্লাটার কি (What is Flutter)?

সহজ ভাষায় ফ্লাটার গুগলের তৈরি একটি সফটওয়্যার ডেভলপমেন্ট টুলকিট যা দিয়ে সহজে ক্রস প্ল্যাটফর্ম এপ্লিকেশন বানানো যায়।বলা বাহুল্য ফ্লাটারের সাম্প্রতিক সংষ্করন(২.০) থেকে কেবল মোবাইল এপ্লিকেশনই নয়, বরং সকল জনপ্রিয় মোবাইল, ডেক্সটপ এবং ওয়েব প্ল্যাটফর্ম এ এপস ডেভলপমেন্ট করা যায় একটি মাত্র কোডবেস দিয়ে।
ফ্লাটারের ৬ টি সাপোর্টেড প্ল্যাটফর্ম গুলো যথাক্রমে-
এন্ড্রয়েড
আইওএস
উইন্ডোজ
লিনাক্স
ম্যাক
ওয়েব

ফ্লাটার কোন প্রোগ্রামিং ল্যাঙ্গুয়েজ নয়

ফ্লাটার একটি ইউআই ফ্রেমওয়ার্ক যার মূল ভিত্তি হিসেবে রয়েছে এর বিশাল প্যাকেজ,প্লাগিন আর উইজেটের সম্ভার।
এই ফ্রেমওয়ার্কটি তৈরিতে ডার্ট নামক প্রোগ্রামিং ল্যাঙ্গুয়েজ ব্যবহার করা হয়েছে। ডার্ট গুগলের তৈরি একটি অবজেক্ট ওয়রিয়েন্টেড প্রোগ্রামিং ল্যাঙ্গুয়েজ যা সর্বপ্রথম ২০১২ সালের ১০ই অক্টোবার অবমুক্ত হয় । এর সিন্টেক্স এর সাথে জনপ্রিয় প্রোগ্রামিং ল্যাঙ্গুয়েজ সি এর অনেক মিল রয়েছে।ডার্ট সহজে ন্যাটিভ কোড অথবা জাভাস্ক্রিপ্টে কম্পাইল হয় । ডার্টে ক্লাস, ইন্টারফেস, মিক্সিন,এবস্ট্রাক্ট ক্লাস সহ সকল অবজেক্ট ওরিয়েন্টেড প্রোগ্রামিং এর সুবিধা বিদ্যমান।

ফ্লাটারই কেন এপ ডেভলপমেন্টের ভবিষ্যৎ

বর্তমানে ফ্লাটার ছাড়াও ক্রস প্ল্যাটফর্ম এপ্লিকেশন ডেভলপমেন্টের জন্য আরো কিছু জনপ্রিয় ফ্রেমওয়ার্ক রয়েছে,
যাদের মধ্যে রিয়েক্ট ন্যাটিভ, আয়োনিক,জ্যামারিন অন্যতম, যার সবগুলোই ফ্লাটারের অনেক আগে থেকেই বিদ্যমান।
এখন সবছেয়ে গুরুত্বপূর্ন প্রশ্ন, এতগুলো ফ্রেমওয়ার্কের ভিড়ে ফ্লাটার কেন এপ ডেভলপমেন্ট এর জন্য প্রথম পছন্দ কিংবা ফ্লাটারে কি কি বাড়তি সুবিধা রয়েছে।
ফ্লাটারের অনেকগুলো বাড়তি সুবিধার মধ্যে প্রধানতম কয়েকটি হচ্ছে

ক্রস প্ল্যাটফর্ম: এই বৈশিষ্ট্যটি ফ্লাটারকে কোডটি একবার লিখতে, মেইনটেইন করতে এবং বিভিন্ন প্ল্যাটফর্মে চালাতে সাহায্য করে। এটি ডেভেলপারদের সময়, প্রচেষ্টা এবং অর্থ সাশ্রয় করে।

ওপেন সোর্স: মোবাইল অ্যাপ্লিকেশন ডেভেলপের জন্য ফ্লাটার একটি ফ্রি এবং ওপেন সোর্স ফ্রেমওয়ার্ক।

হট রিলোড: যখনই ডেভেলপার কোডে পরিবর্তন করে তখন হট রিলোডের মাধ্যমে এই পরিবর্তনগুলি তাত্ক্ষণিকভাবে দেখা যায়। এর অর্থ হ’ল অ্যাপগুলিতে তত্ক্ষণাত পরিবর্তনগুলি দৃশ্যমান। এটি খুব কার্যকর বৈশিষ্ট্য, যা ডেভেলপারকে তাত্ক্ষণিকভাবে বাগগুলি ঠিক করতে সাহায্য করে।

ন্যূনতম কোড: ফ্লাটার অ্যাপটি ডার্ট প্রোগ্রামিং ল্যাঙ্গুয়েজ দ্বারা ডেভেলপ করা হয়েছে, যা সবদিক দিয়ে প্রাথমিক সময়, কার্য সম্পাদন এবং পারফাম্যান্স বাড়াতে JIT এবং AOT ব্যবহার করে। JIT ডেভেলপমেন্ট সিস্টেম উন্নত করে এবং নতুন করে ডেভেলপমেন্ট এ অতিরিক্ত প্রচেষ্টা না করে ইউআইকে রিফ্রেশ করে।

নিজস্ব রেন্ডারিং ইঞ্জিন: ফ্লাটার ইউআই ভিজুয়ালাইজেশন এর জন্য নিজস্ব রেন্ডারিং ইঞ্জিন স্কিয়া ব্যবহার করে , এতে করে ভিন্ন ভিন্ন প্ল্যাটফর্মে ইউআই এর কোন তারতম্য থাকে না। সবোগুলো প্ল্যাটফর্মে হুবহু একই ইউআই দেখায় যে সুবিধা অন্য কোন ক্রস প্ল্যাটফর্ম এপ্লিকেশন ডেভলপমেন্ট ফ্রেমওয়ার্কে নেই।

Flutter
ফ্লাটারের প্রধান সুবিধাসমূহ

ফ্লাটার এর অসুবিধা

– ফ্লাটার একটি তুলনামূলকভাবে নতুন ল্যাঙ্গুয়েজ যা স্ক্রিপ্টগুলির মেইনটেইনের মাধ্যমে কন্টিনিউয়াস ইন্টিগ্রেশন সাপোর্ট প্রয়োজন।
– এটি SDK লাইব্রেরীগুলিতে খুব সীমিত অ্যাক্সেস প্রদান করে। এর অর্থ একটি মোবাইল অ্যাপ্লিকেশন তৈরি করতে কোনও ডেভেলপার এর অনেক ফাংশনালিটি নেই। এ জাতীয় ক্রিয়াকলাপগুলি তাদের ফ্লাটার এর ডেভেলপারদের দ্বারা ডেভেলপ করা দরকার।
– এটি কোডিংয়ের জন্য ডার্ট প্রোগ্রামিং ব্যবহার করে, তাই ডেভেলপারকে নতুন প্রযুক্তি শেখার প্রয়োজন হবে।

পূর্বশর্ত

ফ্লাটারকে(What is Flutter) গভীরভাবে শেখার আগে আপনার অবশ্যই ডার্ট প্রোগ্রামিং, অ্যান্ড্রয়েড স্টুডিও এবং ওয়েব স্ক্রিপ্টিং ফ্রেমওয়ার্ক যেমন এইচটিএমএল, জাভাস্ক্রিপ্ট এবং সিএসএসের বোঝা উচিত।

Fluttertune in facebook

More Flutter Tutorial Bangla

Leave a Reply

Your email address will not be published.